উচ্চ আদালতের আদেশ অমান্য করেই চলছেন নারায়নগঞ্জের ডিপিডিসি।

0

প্রেসনিউজ২৪ডটকমঃ মহামান্য উচ্চ আদালত কর্তৃক আদেশ অমান্য করে বৈদ্যুতিক সংযোগ না দিয়ে আইন অবমাননা করেছে নারায়নগঞ্জ ডিপিডিসি এবং এড.রেজাউল করিম খান রেজার উপর হামলার ঘটনাস্থলে তদন্তে আসেন নারায়নগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি(অপারেশন) মোঃআব্দুল হাই।

গতকাল বৃহস্পতিবার (১৩ফেব্রুয়ারি) সকালে নারায়নগঞ্জ ডিপিডিসিকে মহামান্য উচ্চ আদালতের আদেশের কপি দেওয়া হলেও কোন বৈদ্যুতিক সংযোগ দেওয়া হয় নাই । অন্যদিকে বিকেলে নারায়নগঞ্জ কালিবাজার এর শায়েস্তা খান রোডের পুরাতন কোর্টের ঘটনাস্থলে আসে পুলিশ।

গতকাল বুধবার(১২ ফেব্রুয়ারি) মহামান্য উচ্চ আদালত কর্তৃক ঢাকা পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড (ডিপিডিসি) নারায়নগঞ্জের নির্বাহী প্রকৌশলীকে নারায়নগঞ্জ পুরাতন কোর্ট অবস্থিত এড.রেজাউল করিম খান রেজার চেম্বারে বৈদ্যুতিক সংযোগ দেওয়ার আদেশ দেওয়া হয়। ঘটনাস্থলে পুলিশ তদন্তে আসলে এড.রেজাউল করিম খান রেজা উচ্চ আদালত মামলাধীন বিভিন্ন ডকুমেন্টস সহ বৈদ্যুতিক সংযোগ দেওয়ার আদেশ এবং উচ্চ আদালত কর্তৃক ইঞ্জেকশন জারীর বিভিন্ন আদেশনামা দেখায়।

তদন্তে এসে আব্দুল হাই সংবাদমাধ্যমকে জানায়,গত ৫ ফেব্রুয়ারিতে এড.রেজাউল করিম খান রেজা এর উপর হামলার প্রেক্ষিতে আমাদের নারায়নগঞ্জ সদর মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়। সেই অভিযোগ এর ভিত্তিতে ঘটনাস্থলে তদন্তে আসা হয়েছে।অভিযোগ এর তদন্ত চলছে এবং খুব দ্রুত হামলাকারীদের আমরা আইনের আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা করবো।

উল্লেখ্য যে,গতকাল ৫ফেব্রুয়ারি দুপুর ২টায় রাহাতের নেতৃত্বে ৩০/৪০ জন সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে পুরাতন কোর্ট এলাকায় এসে এড. রেজাউল করিম খানের উপর চড়াও হয়ে তাকে লাঞ্চিত করে এবং তার অফিসের কম্পিউটার ,সাইনবোর্ড ভাংচুর সহ তার আইনী পেশার সমস্ত নথিপত্র ছিঁড়ে ফেলে এবং কর্মচারীদের বের করে দিয়ে তালা মেরে দেয় । রাহাত বাহিনী সহ তার লোকজন রেজাউল করিম খানকে জীবন নাশের হুমকী প্রদান করে এবং ঘটনাস্থলে খবর পেয়ে সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মেহেদী হাসান ফারুক আসলেও রাহাত ও তার বাহিনী এড.রেজাউল করিম খান রেজাকে শাসায় এবং প্রান নাশের হুমকি প্রদান করে।ম্যাজিস্ট্রেট এর উপস্থিতে নারায়নগঞ্জ সদর মডেল থানার এএসআই রফিক রাহাতকে গ্রেফতার করে নিয়ে যায় কিন্তু মোটা অংকের উৎকোচ এর বিনিময়ে পরে রাহাতকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

রাহাতের গ্রেফতারের বিষয়টি প্রত্যক্ষদর্শীরা দেখার পরও নারায়নগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি অস্বীকার করে। এরপর এড রেজাউল করিম খান রেজা রাতে রাহাত ও আরো একাধিককে উল্লেখ করে একটি অভিযোগ দায়ের করে নারায়নগঞ্জ সদর মডেল থানায়।অন্যদিকে পুরান কোর্ট এলাকার মসজিদ কমিটির কাছ থেকে এড.রেজাউল করীম খান ১৯৯৭ সালে একটি দোকান ঘড় ভাড়া নেন ।এই ঘরটিতে তিনি তার আইনী পরামর্শের চেম্বার প্রতিস্থাপন করেন এবং দীর্ঘ ২৩ বছর যাবৎ সুষ্ঠুভাবে আইনী পেশার কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছেন এড.রেজাউল করীম খান নোটারী পাবলিকের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের ইমিগ্রেশন ভিসা সংক্রান্ত পরামর্শের জন্য বেশি পরিচিত

 

Leave a Reply

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here