নন্দীগ্রামে চ্যালেঞ্জ হারলো শুভেন্দু জিতলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

0
নন্দীগ্রামে চ্যালেঞ্জ হারলো শুভেন্দু জিতলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

প্রেসনিউজ২৪ডটকমঃ নন্দীগ্রামে সাপ-লুডো খেলার অবসান। বারোশ ভোটে নিজ দলত্যাগ করে বিজেপিতে যোগ দেয়া শুভেন্দুকে হারালেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রোববার সকালে ভোট গণনা শুরু হওয়ার পর থেকে এই আসনে ক্ষণে ক্ষণে পাল্টাতে থাকে চিত্র। প্রথমে পিছিয়ে থেকেও শেষ পর্যন্ত জয় পেয়েছেন মমতা। জয় নিশ্চিত হতেই বাড়ি থেকে বের হয়ে পায়ে হেঁটে অফিসে ঢুকেছেন তিনি।

এর আগে নন্দীগ্রামে দাঁড়িয়ে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্দেশে বিজেপির প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারী বলেছিলেন মাননীয়াকে ৫০ হাজার ভোটে হারাবো। প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর স্ট্যাম্প তৈরি করে রাখুন। তবে রোববার ফল গণনার পর সেই চ্যালেঞ্জে হারতে হলো শুভেন্দুকে। ভারতের পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনে নন্দীগ্রামে সকাল থেকে শুভেন্দু অধিকারী এগিয়ে থাকলেও মোট ১৭ রাউন্ড ভোট গণনা শেষে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ১২০১ ভোটে জয়লাভ করেছেন।

এখন পর্যন্ত প্রাপ্ত ফলাফলে ২০৭ আসনে এগিয়ে আছে মমতার দল তৃণমূল কংগ্রেস। আর ৮৩ আসনে এগিয়ে আছে বিজেপি। অন্যদিকে এখন পর্যন্ত প্রাপ্ত ফলাফলে জোট ১ ও অন্যনারা ১ আসনে এগিয়ে। প্রাপ্ত ফলাফল বিশ্লেষণে নিশ্চিন্তে বলা যায় পশ্চিমবঙ্গে ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বাধীন তৃণমূল কংগ্রেস বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে টানা তৃতীয়বারের মতো সরকার গঠন করতে যাচ্ছে।

এর আগে বিধানসভা নির্বাচনে মোট ২৯৪ আসনে ভোট অনুষ্ঠিত হয়। প্রথম দফায় ২৭ মার্চ ৩০ টি আসনে, দ্বিতীয় দফায় ১ লা এপ্রিল ৩০ টি আসনে, ৩য় দফায় ৬ এপ্রিল ৩১ আসনে, চতুর্থ দফায় ১০ এপ্রিল ৪৪ আসনে , ৫ম দফায় ১৭ এপ্রিল ৪৫ আসনে, ৬ষ্ঠ দফায় ২২ এপ্রিল ৪৩ আসনে , ৭ম দফায় ২৬ এপ্রিল ৩৬ আসনে ভোট হওয়ার কথা থাকলেও দুই প্রার্থী করোনায় মারা যাওয়ায় ৩৪ টি আসনে ভোট হয়। সর্বশেষ ২৯ এপ্রিল চার জেলায় ৩৫ আসনে ভোট হয়। দ্বিতীয় ধাপ নির্বাচনের সময় সবার নজর ছিল নন্দীগ্রামে।

সেখানে মমতার প্রতিদ্বন্দী ছিল শুভেন্দু অধিকারী । যিনি এক সময় মমতারই অনুগত ছিলেন। এছাড়া বাম-কংগ্রেস- আইএসএফ(ইন্ডিয়ান সেক্যুলার ফ্রন্ট)-সিপিএমের প্রার্থী ছিলেন পরিচিত মুখ মীনাক্ষী মুখোপাধ্যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here